নিউজ বাংলা : উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারী টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশান (UUPTWA) এর ডাকে কলকাতার শহীদ মিনারে দু’দিনের অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হতে ইতিমধ্যেই হাজির হয়েছেন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা হাজার হাজার শিক্ষক শিক্ষিকা।

আকাশ মেঘলা, মাঝে মধ্যেই মেঘের মুখ ভার করে দু-এক ফোটা বৃষ্টি। এর জেরে বেশ ঠান্ডা ঠান্ডা আবহাওয়া। কিন্তু তাতেও কুছ পরোয়া নেই। মাথার ওপরে সামিয়ানা খাটিয়ে শহীদ মিনারের পাদদেশে বসে পড়েছেন বিক্ষোভরত শিক্ষক শিক্ষিকারা।

সংগঠকরা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে মঞ্চে হাজির হয়েছেন প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গাঙ্গুলী, অধ্যাপক হরপ্রসাদ সমাদ্দার, রাজাবাজার সায়েন্স কলেজের অধ্যক্ষ ভাস্কর বাবু, কংগ্রেসের ৫ জন বিধায়ক সহ বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট লেখক, কবি। এছাড়াও শহীর মিনার গ্রাউন্ড ইতিমধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গিয়েছে।

সোমবার বেলা  ২টো নাগাদ সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গাঙ্গুলী উদ্বোধনী ভাষণ দিয়েছেন। শিক্ষকদের আন্দোলন, এই দাবী যে ন্যায় সংগত তার জন্যই তিনি আন্দোলনের পাশে এসে দাড়িয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গতঃ রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী থাকা কালীন মাননীয় ব্রাত্য বসু প্রাথমিক শিক্ষকদের একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে তাঁদের বেতন বৈষম্যের জন্য তাঁদের লড়াই আন্দোলনের কথা বলেছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন, কেন্দ্রের এই বিষয়ে ভাবনা চিন্তা করা উচিত। প্রাথমিক শিক্ষকদের এই যোগ্যতার ভিত্তিতে বেতনের দাবী ন্যায়সঙ্গত বলেও জানিয়েছিলেন তিনি, এমনটাই মত প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের।

প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন UUPTWAএবার রাজ্যের প্রায় সমস্ত এলাকার প্রাথমিক শিক্ষক শিক্ষিকাদেরই নিজেদের ছাতার তলায় নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। আর তারই ফল দেখা যাচ্ছে আজকের অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচীতে।

নিজেদের দাবী আদায়ে উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারী টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশানের উদ্যোগে রাজ্যের সমস্ত প্রাথমিক শিক্ষকরা এক ছাতার চলায় চলে এলে তার প্রভাবে আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারে সন্দেহ নেই।

সংগঠনের  কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য চন্দন চ্যাটার্জী এবং পুরুলিয়া জেলা প্রেসিডেন্ট জয়দীপ্ত চট্টরাজের দাবি :  আমাদের দাবি যতক্ষণ না মানা হবে, আন্দোলন তীব্র থেকে তীব্রতর হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here