তপন মাহাতো  : পুরুলিয়া নিবারণ সায়ের এক সময় ব্রিটিস আমলে টিকলে সাহেব পুরুলিয়া জেলের কয়েকশত কয়েদী দিয়ে এই পুকুরটি খনন করেন যার নাম সাহেব বাঁধ।এই পুকুর কে ঘিরে রয়েছে সুভাষ উদ্যান, জর্গাস পার্ক যেখানে সকালে প্রচুর প্রাতঃভ্রমণকারীরা ভ্রমণ করতে আসেন রয়েছে বিজ্ঞান মিউজিয়াম এর মতো দর্শনিয় স্থান গুলি। এক সময় এই শীতের মৌসুমে সাইবেরিয়া সহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রচুর পরিযায়ী পাখি এই সাহেব বাঁধে আসতো আর তা দেখতে প্রচুর পর্যটক ভিড় করতো এই সাহেব বাঁধে এখন আর সেই পরিযাই পাখিদের আর দেখানেই। এখন এই পুকুরে যেদিকে তাকায় সূধূই দেখা যায় কচুরি পানা। এই সায়রে নিত্যদিন ঢুকছে ও নর্দমার নিকাশি জল। এই সাহেব বাঁধ এখোন এটি জাতীয় সরবরের তকমা পেলেও এই বাঁধের অবস্থা খুবি বেহাল। এই জাতীয় সরবরের রক্ষণাবেক্ষণ এর দায়িত্বে থাকা পুরুলিয়া পৌরসভাও উদাসীন । প্রতি বছরেই নাম মাত্র পরিস্কার করেন কচুরিপানা আবার ছয় থেকে সাত মাস পর এই কচুরিপানা আবার নতুন করে জন্ম নেই ।

শহর ও সমগ্র জেলা বাসীর দাবি যাতে এই কচুরিপানা চিরতরে নির্মূল করে সাহেব বাঁধ এর ঐতিহ্য ও সৌন্দর্য বজায় রাখার প্রচেষ্টা করে পুরুলিয়া মিউনিসিপালিটি |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here