নিউজ বাংলা:- বাংলার লোক উৎসব গুলির মধ্যে কাটোয়ার কার্তিক পুজো অন্যতম প্রধান একটি উৎসব । কাটোয়া শহর তো বটেই সারা মহকুমা জুড়েই এই উৎসবের আনন্দ শুরু হয়ে গেছে । কাটোয়ার সেরা কার্তিক পুজো গুলি এবার কেমন হবে, একবার দেখে নিই-

নিউ আপনজন

সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় পুজো। একে ঘিরে উন্মাদনাও তুঙ্গে। এবার বাজেট বেশ বড়োসড়ো। সম্পূর্ণ পরিবেশ বান্ধব মণ্ডপ এবারের বিশেষ আকর্ষণ। মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় এবারের থিম ” ধর্ম আমার, ধর্ম তোমার – উৎসব সবার “। সর্ব ধর্ম সমন্বয় এর এই পুজো এবার সবার নজর কাড়বে। উদ্যোক্তা শ্রী সুব্রত বিশ্বাস বলেন – হোগলা পাতা, হরিতকি ইত্যাদি দিয়ে মণ্ডপ সজ্জা করা হচ্ছে , দর্শনার্থী দের ভিড় সামাল দেওয়ার জন্য এবার বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

প্রস্তাবিত মণ্ডপ

দেখুন ভিডিও :-

 

দেশবন্ধু বয়েজ ক্লাব :-

কাটোয়ার কার্তিক পুজো অন্যতম প্রধান আকর্ষণ। প্রতি বছরের মতো এবারেও থাকছে নতুন চমক। উদ্যোক্তা শ্রী প্রবীর সেনগুপ্ত বলেন – বাংলার বিভিন্ন মাঙ্গলিক উপাদান যেমন শাঁখা, পলা, সিঁদুর কৌটা এই সব কিছু দিয়ে নতুন ঘরানায় মণ্ডপ সজ্জা হচ্ছে । এবার মণ্ডপ সজ্জায় থাকবে মাঙ্গলিকতার ছোঁয়া। দর্শনার্থী দের সংখ্যা আগের থেকে অনেক বাড়বে বলে তারা আশা করছেন |
চলছে মণ্ডপ সজ্জা :-

ইউনিক :

২২ বছরে পদার্পন করলো ইউনিক। কাটোয়ার প্রাণকেন্দ্র সার্কাস ময়দানে অবস্থিত হওয়ায় দর্শনার্থী দের সংখ্যা বেশ বেশি থাকে । এবার তার অন্যথা হবে না । উদ্যোক্তা শ্রী জয়দেব দে বলেন – ইউনিক সব সময় ই “ইউনিক”। এবার সাবেকি ঘরানায় বাঁশ , বেত, ইত্যাদির দ্বারা তৈরী হচ্ছে মূল মণ্ডপটি , ভিতরে থাকছে অপূর্ব বাঁশ ও বেত এর ঝাড়বাতির আবহ।

প্রস্তাবিত মণ্ডপ

 

ঝংকার :-

৬৭ বছরের পুরোনো পুজো। ঐতিহ্য বাহী “থাকা” তো থাকবেই, এবারে নতুন ভাবে সংযোজিত হচ্ছে জলের উপর মণ্ডপ সজ্জা । উদ্যোক্তা শ্রী কালী চট্টরাজ বলেন – ঝংকার কাটোয়ার কার্তিক পুজোর অন্যতম অংশ, দূর দূরান্তের মানুষ আসেন এই পুজো দেখতে। এবারে সংযোজিত হচ্ছে জলের উপর মণ্ডপ সজ্জা তাই দর্শনার্থী দের বাড়তি পাওনা তো থাকছেই। ঝংকার এর শোভাযাত্রা প্রতিবারই সবার নজরকারে এবারেও তার ঐতিহ্য বজায় থাকবে ।

প্রস্তাবিত মণ্ডপ

 

নবকল্যান সংঘের “ধূসর ইতিকথা “

কাটোয়া পাবনা কলোনির অজয় পল্লীর এই পুজো এবার ২৬ বছরে পা দিলো । কার্তিক পুজোর পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কাজ করেথাকে নবকল্যান সংঘ। এবছর তার ব্যাতিক্রম হচ্ছে না। উদ্যোক্তারা জানান ২৯ শে কার্তিক উদ্বোধনের দিন বস্ত্র বিতরণ করা হবে। এছাড়াও প্রতিদিন ই থাকছে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। তারা বলেন – গত বছরের থিম যথেষ্ট নজর করেছিল ,এবারের থিম “ধূসর ইতিকথা ” আরো অনেক দর্শকদের টেনে আনবে। ভিড় সামলানোর জন্য এবার তারা পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখছেন । তাই সকলকে একবার আসতেই হবে নবকল্যান সংঘের “ধূসর ইতিকথা ” তে ।

কার্তিক পুজোর প্রতিদিন নিউজ বাংলা থাকছে আপনার সাথে।
আমাদের Whats App করুন – 6297377757

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here