স্বপ্নের উড়ান পুরুলিয়ার স্কুল ছাত্রীরা এবার এই উড়ানের সওয়ার হবে . গ্রামের ঋতুমতী মেয়েরা এখনও তেমন সচেতন নয় .নানা কুসংস্কার,আর্থিক অভাব আর অশিক্ষার জেরে স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার তেমন গতি পায়নি এই জেলায় .এর জেরে নানা ধরনের জটিল রোগের শিকার হয় এই অল্পবয়সী মেয়েরা .
এবার জেলা প্রশাসন এ থেকে মেয়েদের মুক্তি দিতে অভিনব একটি প্রকল্প চালু করল জেলায় .প্রকল্পের নাম উড়ান|


জেলার স্বনির্ভর গোষ্ঠীদের প্রশিক্ষণ দিয়ে বানানো হচ্ছে স্যানিটারি ন্যাপকিন .যার নাম উড়ান .এবার এই ন্যাপকিন পৌঁছে যাবে জেলার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে .বিনিময় মাত্র পাঁচ টাকা .পাঁচ টাকায় দুটি প্যাড তুলে দেওয়া হচ্ছে ছাত্রীদের হাতে .
এর ফলে শুধু আর্থিকভাবে নয় এর ব্যবহারও বাড়বে বহুগুণ .আর এই ছাত্রীদের মাধ্যমে গ্রামে গ্রামে অসচেতন মহিলাদের মধ্যেও ন্যাপকিন ব্যবহারের স্বপক্ষে ইতিবাচক বার্তা বাড়বে .স্বভাবতই ছাত্রীরা এখন অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী .সংকোচ আর বিহ্বলতা কে দূরে রেখে এই স্বাস্থ্য বিধানের নতুন পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে গ্রামের মেয়েদের সাফল্যের নজির বলেই বিবেচিত হবে .এ এক নতুন অগ্রগতি । এই স্কুলের ছাত্রী কিরণ নিজের টিফিনের পয়সায় নেপকিন কিনে ষ্কুল ছাড়াও গ্রামের বান্ধবীদের এই নেপকিন ব্যবহার ও উপকারিতা সমন্ধে জাগরুক গড়ে তোলেন ।

Source : TAPAN MAHATO

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here