পুরুলিয়ার সদ্যজাতর মৃত্যু ঠেকাতে এবার একটি পাইলট প্রজেক্ট চালু করল পুরুলিয়া জেলা প্রশাসন |

জেলায় শিশুমৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশী রঘুনাথপুরেই. আর এ ক্ষেত্রে জন্মের পর শিশুর শরীরে সংক্রমণকেই দায়ি করছেন চিকিত্সকরা . মায়েদের অবস্থাও সংকটজনক . সুষম খাদ্যের অভাবে রক্তালপতায় ভোগেন বহু মা . এ ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিধান কে মেনে চললে ফল অন্যরকম হতে পারে . রঘুনাথপুর এর মহকুমা শাসক আকাঙ্খা ভাস্কর নিজেই একজন চিকিত্সক . তাঁরই উদ্যোগে এই প্রকল্প পরীক্ষামূলক ভাবে চালু হল .সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সন্তান প্রসব এর পর একটি কীট তুলে দেওয়া হবে মায়ের হাতে .এই কীটে থাকছে শিশুর জন্য তোয়ালে ,সাবান ,মশারি ,মোজা ,টুপি র মতো সরঞ্জাম .মায়েদের জন্য থাকছে ফলিক অ্যাসিড ,ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট আর সবলা পোষ্টিক লাড্ডু .
এই স্বাস্থ্যবিধান মেনে চললে ফল মিলবে হাতে নাতে . প্রশাসনের দাবি পরীক্ষামূলক ভাবে এই প্রকল্পের সাফল্য মিললে তা গোটা জেলায় চালু হবে .তার পর রাজ্য প্রশাসন হয়তো রাজ্যব্যপী এই প্রকল্প চালু করতে পারে ।

Source : TAPAN MAHATO

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here